Friday, 3 March 2017

Wildlife in West Bengal Today - A Report

The Wildlife Wing of Forest Department manages 4692 sq km of protected area network, i.e., 5.28% of geographical area of state (as of 2015), up from 4.56% prior to 2013. The Bengal Government is committed to the conservation and protection of wildlife in the State and has taken several initiatives for the same.

The Wildlife Wing has achieved great success in the conservation of Rhino and Elephant habitat. The population of Rhinos touched 236 and Elephants touched 647 in 2015, the highest in the last few decades. Recent ‘Camera Trap’ technology showed healthy population of tigers in the wild and for the first time, a census of crocodiles was done in 2012 in state.

The most notable initiatives of West Bengal Zoo Authority are starting of works of Sunderban Wild Animal Park at Jharkhali and North Bengal wild Animal Park at Siliguri. Padmaza Naidu Himalayan Zoological Park, Darjeeling now acquired the status of best zoological park in the country.

A new wildlife sanctuary, Pakhi Bitan, was notified at Gajoldoba in North Bengal for conserving the habitat and protecting populations of migratory birds.

Bengal Safari Park, spread over 297 hectares of natural forest land consisting of sal and other trees, was inaugurated by the Chief Minister in January, 2016. The park has a mixed herbivore and a tiger safari was recently inaugurated. Lesser cats, fresh water crocodile and gharial and representative birds of North Bengal are displayed in large enclosures in the park.

 

বন্যপ্রাণী সংরক্ষণে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ রাজ্য সরকার

বন্যপ্রাণী সংরক্ষন ও নিরাপত্তায় বদ্ধপরিকর রাজ্য সরকার; এই উদ্দেশ্যে অনেক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

রাজ্য বনদপ্তরের অন্তর্গত বন্যপ্রাণী বিভাগ রাজ্যের ৪৬৯২ বর্গ কিঃ মিঃ অঞ্চলকে নিয়ন্ত্রন করে। এই অঞ্চলটির আয়তন গোটা রাজ্যের আয়তনের ৫.২৮ শতাংশ (২০১৫ সাল পর্যন্ত), যা ২০১৩ সাল অবধি ৪.৫৬ শতাংশ ছিল।

গণ্ডার ও হাতি’র সংরক্ষনে ইতিমধ্যেই সাফল্য অর্জন করেছে বন্যপ্রাণী বিভাগ। গণ্ডারের সংখ্যা ২৩৬ ও হাতির সংখ্যা ৬৪৭ হয়েছে ২০১৫ সালের গণনা অনুযায়ী। অত্যাধুনিক “ক্যামেরা ট্র্যাপ” প্রযুক্তিতে দেখা গেছে বাঘেদের জনসংখ্যাও বেশ ভাল। ২০১২ সালে রাজ্যে প্রথমবার কুমিরের গণনা করা হয়।

West Bengal Zoo Authority-র উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ হিসেবে বলা যেতে পারে, ঝড়খালিতে ‘সুন্দরবন ওয়াইল্ডলাইফ পার্ক ও শিলিগুড়িতে ‘উত্তরবঙ্গ বন্য প্রাণী পার্ক তৈরী। দার্জিলিঙের ‘পদ্মজা নাইডু হিমালয়ান জুলজিকাল পার্ক’ দেশের সেরা চিড়িয়াখানা হিসেবে স্বীকৃত।

পরিযায়ী পাখিদের সংরক্ষন ও নিরাপত্তা প্রদানের উদ্দেশ্যে নির্মিত উত্তরবঙ্গের গাজলডোবার “পাখি বিতান” হল একটি নতুন উদ্যোগ।

২৯৭ হেক্টর জমিতে তৈরী বেঙ্গল সাফারি পার্ক উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে। ওই পার্কে কিছুদিন আগেই টাইগার সাফারির উদ্বোধন করা হয়। কুমির ও ঘড়িয়ালের পাশাপাশি উত্তরবঙ্গের কিছু পরিচিত পাখিও প্রচুর সংখ্যায় দেখা যাবে এখানে।