Friday, 3 March 2017

Read in Detail - Bengal Health Bill

The historic West Bengal Clinical Establishments (Registration, Regulation and Transparency) Bill, 2017 was passed at the West Bengal Assembly today.

The Bill aims to regulate the private hospitals and bring in transparency in the manner in which they operate.

Bengal Chief Minister Mamata Banerjee spoke at length on the Bill during a discussion in the Assembly. She called the Bill ‘historic’ and “a model for the entire country”.

Highlights of Mamata Banerjee’s speech at the State Assembly:

Opposition for the sake of it had become a norm in Bengal. No more. We work for the people.Those who are giving lectures today did not do any work for 34 years. Despite the huge debt burden, we are working for the peopleWe have increased number of beds by 27000. We provide healthcare for free in govt hospitals in Bengal

People from Bihar, Jharkhand, Odisha, North East, Bhutan, Nepal, Bangladesh come to Bengal for treatment

Procedures like MRI, Scan, X-Ray, blood tests and even dialysis are provided at much lower cost

112 fair price medicine shops providing up to 70% discount have been set up

16 Mother and Child Hubs, 70 SNCUs, 303 SNSUs have been set upInstitutional delivery has increased from 65% to 90% in last five years. Infant Mortality Rate (IMR) has been reduced from 32 to 26

Fair Price Diagnostic Centers and Dialysis Services have been set up at 46 State Run Facilities

We have set up 7 new health districts and 7 new medical colleges

Children receive free cardiac surgeries under Sishu Sathi scheme. We have started breast milk bank. We have initiated Swasthya Sathi scheme.Seats have been increased at medical colleges

Health department conducted a survey for one year before bringing this Bill

Some hospitals are taking PAN cards and FD papers of patients. We never heard of things like this

Some hospitals are overcharging patients, making exaggerated bills. The greed is crossing all limits

This Bill aims at bringing transparency, ending harassment of patients and taking steps to stop medical negligence

This Bill makes provisions for proper compensation in case of negligence by hospitals

Hospitals have to start e-prescriptions and keep online medical records

Hospitals cannot charge more than the package for treatment. They must provide an estimate for additional cost

Hospitals must start ‘Public Grievance Cell’

Hospitals with more than 100 beds must start fair price medicine shops and diagnostic centres

Hospitals getting land from Govt must provide free treatment to 10% people

Hospitals must provide primary treatment to accident victims

Hospitals not following this law may lose license

13-member West Bengal Clinical Establishment Regulatory Commission to be set up, headed by a former judge of the High Court

The regulatory commission can impose penalty up to Rs 50 lakh on hospitals

Life saving treatment and medicines cannot be stopped even if patient cannot give money

Deadbodies of patients cannot be held back due to non-payment of dues

We must provide service with a smile

ঐতিহাসিক স্বাস্থ্য বিলকে সারা দেশের জন্য মডেল বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

আজ বিধানসভায় ঐতিহাসিক ওয়েস্ট বেঙ্গল ক্লিনিক্যাল এস্টাব্লিশমেন্টস (রেজিস্ট্রেশন, রেগুলেশন অ্যান্ড ট্রান্সপেরেন্সি) বিল ২০১৭ পাশ হল।

স্বাস্থ্য পরিষেবায় স্বচ্ছতা আনতে, রোগীদের হয়রানি বন্ধ করতে ও  চিকিৎসায় গাফিলতি রুখতে এই বিল আনা হয়েছে।

বিধানসভায় এই বিল নিয়ে আলোচনার শেষে বক্তব্য রাখেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই বিলকে ঐতিহাসিক আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন সারা দেশের কাছে এটি একটি মডেল।

বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের কিছু অংশঃ

যারা আজ বড় বড় ভাষণ দিচ্ছেন ৩৪ বছরে তারা কোন কাজ করেনিআমরা হাসপাতালে বেডের সংখ্যা ২৭০০০ বাড়িয়েছি। সরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে চিকিৎসা দেওয়া হয়বিহার, ঝাড়খণ্ড, ওড়িশা, NE ভারত, ভুটান, নেপাল, বাংলাদেশ থেকে মানুষ বাংলায় আসে চিকিৎসার জন্যএম আর আই, স্ক্যান, এক্স-রে, রক্ত পরীক্ষা এমনকি ডায়ালিসিসও কম খরচে করা হয়১১২ টি ন্যায্য মূল্যের ওষুধের দোকানে ৭০ শতাংশ ছাড়ে ওষুধ পাওয়া যায়১৬টি মাদার চাইল্ড হাব, ৭০ টি এস এন সি ইউ, ৩০৩টি এস এন এস ইউ তৈরী করা হয়েছেগত ৫ বছরে ইন্সটিটিউশন ডেলিভারি ৬৫% থেকে বেড়ে হয়েছে ৯০%৪৬ টি সরকারি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ন্যায্যমূল্যের ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ডায়ালিসিস পরিষেবা দেওয়া হয়শিশু মৃত্যুর হার ৩২ থেকে কমে ২৬ হয়েছে৭ টি নতুন স্বাস্থ্য জেলা ও ৭টি নতুন মেডিকেল কলেজ তৈরী করেছি আমরাশিশু সাথীর আওতায় শিশুদের বিনামূল্যে হার্ট অপারেশন করা হয়। আমরা মাতৃ দুগ্ধ ব্যাঙ্ক চালু করেছিস্বাস্থ্য সাথী প্রকল্প চালু করেছিযারা আজ বড় বড় ভাষণ দিচ্ছেন ৩৪ বছরে তারা কোন কাজ করেনিএত ঋণের বোঝা থাকা সত্ত্বেও আমরা মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছিঅনেক বেসরকারি হাসপাতাল ভালো কাজ করে। যারা করে না তাদের নিয়ন্ত্রণ করতে হবেএই বিলটি আনার আগে স্বাস্থ্য দপ্তর এক বছর ধরে একটি সমীক্ষা করেকিছু হাসপাতাল রোগীদের থেকে এফ ডি পেপার ও প্যান কার্ড নিচ্ছে। এরকম ঘটনা আগে কখনো শুনিনিকিছু কিছু হাসপাতালে বিল লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে, লোভের সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছেধৈর্যের বাঁধ ভাঙলে কড়া পদক্ষেপ নিতেই হয়স্বাস্থ্য পরিষেবায় স্বচ্ছতা আনতে, রোগীদের হয়রানি বন্ধ করতে ও  চিকিৎসায় গাফিলতি রুখতে এই বিলহাসপাতালের গাফিলতিতে রোগীর মৃত্যু হলে হাসপাতালকে তার ক্ষতিপূরণ দিতে হবেই-প্রেসক্রিপশন ও সব মেডিক্যাল রেকর্ডসের ই-কপি সব রোগীকে সরবরাহ করতে হবেহাসপাতাল চিকিৎসার প্যাকেজের বাইরে অতিরিক্ত টাকা চার্জ করতে পারে নাঅতিরিক্ত খরচের হিসেব আগেই দিতে হবেহাসপাতালগুলিকে পাবলিক গ্রিভেন্স সেল চালু করতে হবে১০০ র বেশি বেড যে হাসপাতালে আছে সেখানে ন্যায্যমূল্যের ওষুধের দোকান ও ডায়াগনসটিক সেন্টার থাকতে হবে১০% মানুষকে বিনামূল্যে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য হাসপাতালগুলিকে জমি দেবে রাজ্য সরকারদুর্ঘটনাগ্রস্ত কোন রোগীকে অবশ্যই প্রাথমিক চিকিৎসা দিতে হবেএই আইন মেনে না চললে হাসপাতালের  লাইসেন্স বাতিল হতে পারে১৩ জন সদস্য নিয়ে ওয়েস্ট বেঙ্গল ক্লিনিক্যাল এস্টাব্লিশমেন্টস রেগুলেটরি কমিশন তৈরী করা হবেরেগুলেটরি কমিশনের প্রধান হবেন হাই কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতিহাসপাতালের ওপর ৫০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জরিমানা চাপাতে পারে রেগুলেটরি কমিশনজীবনদায়ী ওষুধ ও পরিষেবা বন্ধ করা যাবে না, টাকা না থাকলেও চালাতে হবেটাকা না থাকলেও দেহ আটকে রাখা যাবে নাঅনেক বেসরকারি স্কুল চড়া ডোনেশন চায়। বোর্ড পরীক্ষার পর আমরা এই বিষয়টি দেখবহাসি মুখে আমাদের পরিষেবা দিতে হবেআমরা আবারও বাংলার মা-মাটি-মানুষকে প্রণাম জানাই। আমরা মানুষের জন্য কাজ করে যাব